দেশ সংযোগ

উলিপুরে রহস্য জনক রিংকি হত্যা মামলায় গ্রেফতার ২

উলিপুরে রহস্য জনক রিংকি হত্যা মামলায় গ্রেফতার ২ জনসংযোগ

স্টাফ রিপোর্টার,মোঃ শাহজাহান খন্দকার

কুড়িগ্রামের উলিপুরে বাবার বাড়ির শয়ন ঘর থেকে নৃশংস ও চাঞ্চল্যকর রোকাইয়া জান্নাত রিংকি (১৭) হত্যার ঘটনায় জড়িত সন্দেহে আসিফ ও মারুফ নামের২জনকে আটক করে জেল হাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ। পুলিশ তথ্য সুত্রে জানা জায়, উপজেলার পান্ডুল ইউনিয়নের তেলিপাড়া গ্রামের এনজিওকর্মী রেজাউল করিমের মেয়ে রিংকির সাথে একই উপজেলার ধরণী বাড়ি ইউনিয়নের কেকতির পাড় নামক এলাকার গ্রামের সেনা সদস্য মেহেদীর সাথে বিয়ে হয়। বিয়ের ৫ মাসে মধ্যে প্রত্যন্ত একটি গ্রামে শয়ন ঘর থেকে গত ১৩ আগষ্ট নববধূ রিংকির গলা কাটা নৃশংস ভাবে হত্যা করা লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

পুলিশ সদস্য ও রিংকির মামী জানায়, আঘাতে জর্জরিত করে রিংকির মৃত্যু নিশ্চিত করে হত্যাকারী পালিয়ে যায়। হত্যাকারী তার গলা কেটেই ক্ষান্ত হয়নি, সারা শরীরে ধারালো অস্ত্র দিয়ে ১৭টি জায়গায় আঘাত করেছে। ঘাড়ের পাশে অস্ত্র দিয়ে এমনভাবে আঘাত করেছে যা দেখে পুলিশ ও পরিবারের সদস্যরা বলছেন, নৃশংসতা এ ঘটনায় ভীষণ রকম ‘ক্ষোভের’ বহিঃপ্রকাশ রয়েছে।এ হত্যাকাণ্ডে এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

প্রতিবেশী ও রিংকির চাচাতো ভাই বলেন, ‘রিংকির শরীরে করা প্রতিটি আঘাতই বলে দেয়, রিংকির প্রতি হত্যাকারীর ভীষণ ক্ষোভ ছিল। কিন্তু কার এত ক্ষোভ ছিল, কেনই-বা এভাবে মেয়েটিকে হত্যা করলো তার কোনও সুত্রপাত আমরা এখনও পাচ্ছি না।নৃশংস এ হত্যাকান্ডের ঘটনায় নিহত রিংকির বাবা বাদী হয়ে অজ্ঞাত ব্যক্তিকে আসামি করে উলিপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

হত্যাকাণ্ডের পর, সি আই ডি ও পুলিশ ওই ঘর থেকে নিহতের হাতে লেখা ডায়েরি, কয়েকটি চিঠি ও মোবাইল ফোন জব্দ করেছে । নিহত রিংকি কারও ব্যর্থ ও অপূর্ণ প্রেম থেকে ‘ক্ষোভের’ বলি হয়েছেন কিনা সে দিকেও খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

এদিকে জব্দকৃত ডায়েরি , চিঠি ও প্রাথমিক অনুসন্ধানে হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে রাকিবুল ইসলাম রাকিবকে এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। আসাদুজ্জামান আসিফকে রংপুর থেকে ও মারুফকে ঢাকা থেকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ। ইলেকট্রনিক তথ্য সুত্রে পুলিশের ধারণা, এই যুবকদের সঙ্গে বিয়ের আগে থেকে যোগাযোগ ছিল রিংকির।

আসিফের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কের বিষয়টি রিংকির পরিবার জানতো। নিহতের বাড়িতে আসিফের যাতায়াত ছিল। তাদের বিয়ের আলাপও হয়েছিল। তবে আসিফের পরিবার রাজি না থাকায় তা সম্ভব হয়নি। আসিফ দীর্ঘদিন থেকে রংপুরে পড়াশোনা করেন বলে তার পারিবারিক সূত্রে জানায়। তার বিরুদ্ধে উলিপুর থানায় ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্টে মামলা রয়েছে।

আর রাকিবুল ইসলাম রাকিব নিজ বাড়ি থেকে কুড়িগ্রামে একটি বেসরকারি পলিটেকটিক ইনস্টিটিউট থেকে সদ্য ডিপ্লোমা করেছেন। রিংকির কক্ষে পাওয়া চিঠিতে যে রাকিবুলের নাম লেখা রয়েছে, এই রাকিবুল সেই রাকিবুল কিনা তা এখনও নিশ্চিত হতে পারেনি পুলিশ।

স্হানীয় সুত্রে জানা যায় ,আটক যুবক মারুফ প্রেমের সম্পর্কে জড়াতে প্রায়ই রিংকিকে উত্যাক্ত করতো।সব দিক বিবেচনা করে তদন্ত কাজ চলছে বলে জানিয়েছেন তদন্তকারী কর্মকর্তা আজিজুল হাকিম।

এ বিষয় উলিপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি)গোলাম মর্তুজা বলেন, আসিফ ও মারুফকে আটক করে কুড়িগ্রাম কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে এবং রাকিবকে জিজ্ঞাসাবাদের পর তার পরিবারের জিম্মায় দেয়া হয়েছে।

আপনার পণ্য বা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন এখানে

এ সম্পর্কিত আরও খবর

আপনার পণ্য বা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন এখানে
Back to top button

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker