সারাদেশ

নলছিটি খাওখীর এলাকায় কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা জনসম্মুখে হামলা চালিয়ে ডাকাতি 

নলছিটি খাওখীর এলাকায় কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা জনসম্মুখে হামলা চালিয়ে ডাকাতি  জনসংযোগ

মোঃ জহিরুল ইসলাম, নলছিটি প্রতিনিধি

ঝালকাঠি নলছিটি উপজেলার ২ নং মগর ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডে খাওখীরে শেখ পরিবারের উপর অতর্কিত হামলা ও ডাকাতি ঘটনা ঘটে, গত ২ তারিখ সন্ধ্যাবেলায় জনসম্মুখে এ হামলা ও ডাকাতি করা হয়।

ঝালকাঠির নলছিটির ২ নং মগর ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডে খাওখীরে, কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা হামলা চালিয়ে ৩টি বসত ঘর ও একটি আলফা গাড়ি ভাঙচুর এবং ঘরের ভিতরে আসবাপ পত্র ভাঙচুর করে তিন লক্ষ টাকার স্বর্ণ অলংকার এবং জমি বিক্রি করার নগদ তিন লক্ষ টাকা নিয়ে চলে যায়। পরে খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এতে বাসস্থলের গুরুতর আহত ইব্রাহীম শেখ (২৬), রুনা বেগম (৪০), উজ্জ্বল শেখ (৪২), (শেরে-বাংলা মেডিকেল হাসপাতাল ভর্তি) জামাল শেখ (৫৬), রুনা বেগম (৪০), ইব্রাহীম বেপারি (৪৫), ফয়সাল শেখ (২৭) তারা জানান, পরিকল্পিত যোগসাজশে যেকোনো মাধ্যমে স্বর্ণসহ নগদ টাকার খবর পেয়েই হামলা চালায় চিহ্নিত আলোচিত এই কিশোর গ্যাংয়ের দলটি।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

এদিকে কিশোরগ্যাং এর ভয়ে নিজ বাড়িতে থাকতে পারতেছেন না হামলার শিকার ভুক্তভোগী এবং এলাকাবাসীরা,তারা বলেন দীর্ঘদিন যাবৎ আমরা এই কিশোরগ্যাং এর অত্যাচারে অতিষ্ঠ তাদের ভয়ে আমরা সন্ধ্যার পর ঘর থেকে বের হতে পারি না, বের হলে বিভিন্ন বাজে মন্তব্য এবং টানা হেচড়া করে এবং এই ঘটনা ইউপি মেম্বার ফজলু খানকে জানালে তিনিও হামলাকারীদের পক্ষে কথা বলেন, এবং বলেন হামলাও হবে মামলাও হবে।

ভুক্তভোগী পরিবার এবং এলাকার জনসাধারণ বলেন, আমরা এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চাই। হামলাকারীদের অতি দূরত্ব আইনের আওতায় এনে শাস্তির সর্বোচ্চ দাবী জানাচ্ছি।

বতর্মান সময়ে ঝালকাঠির নলছিটির ২ নং মগর ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডে খাওখীরে, অপরাধ জগতের একটি আলোচিত নাম কিশোর গ্যাং। গণপরিবহন থেকে চায়ের দোকান , চায়ের দোকান থেকে থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম―সব জায়গায় ‘কিশোর গ্যাং’ বা ‘গ্যাং কালচার’ নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। উঠতি বয়সের কিশোররা প্রভাবশালীদের ছত্রচ্ছায়ায় গড়ে তুলছে কিশোর গ্যাং। তারা এলাকায় মানুষের উপর হামলা ও চাঁদাবাজি -ধর্ষণসহ নানাবিধ অপরাধের সাথে জড়িত হয়ে পড়ছে।

হামলাকারী কিশোরগ্যাং এর সদস্যরা হলেন 

১। সেহযান (১৮), পিতা:ফজলু খান। ২।নাসিম(১৭) পিতা:মনির ৩।রাফি(১৭) পিতা:কবির পুলিশ ৪।নিরব(১৬) পিতা:অহেদ খান ৫।শামীম(১৭) ৬।হৃদয় (১৬) মাতা: লাকি বেগম ৭। ৮।সালমান (১৭) ৯।খলিল(১৬) ১০।সাব্বির(১৬) পিতা: কবির খান ১১। মিরাজ(১৭) পিতা:কবির সহ অজ্ঞত ২০ থেকে ৩০ জনের একটি দল, ঝালকাঠির নলছিটির ২ নং মগর ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডে খাওখীরে শেখ পরিবারের উপর অতর্কিত হামলা ও ডাকাতি ঘটনা ঘটায়।

এলাকার আশেপাশের মানুষজন ও ভূক্তভোগী সূত্রে জানাযায়, দীর্ঘদিন যাবত স্থানীয় ইউপি মেম্বার ফজলু খানের এর নেতৃত্বে ও তার ছেলে সেহযান খানকে সঙ্গে নিয়ে কিশোরগ্যাং এর সদস্যরা এই হামলা চালায়।

উক্ত ঘটনার প্রেক্ষিতে নলছিটি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জনাব মোঃ মুরাদ আলীর সাথে মুঠো ফোনে কথা বলে জানা গেছে যে মামলা প্রক্রিয়া দিন এখন পর্যন্ত কাউকে আটক করা হয় নাই এবং কোন মালামালও জব্দ করা হয় নাই । যদি মামলা হয় তাহলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এদিকে এ ঘটনা সম্পর্কে জানতে সাংবাদিক মো: নাঈম ইসলাম ইউপি মেম্বারকে ফোন দিলে তিনি বলেন হামলার ঘটনা সত্য, কিশোরগ্যাং সদস্যরা হামলা চালানোর সময়, আমি পুলিশ নিয়ে তাদেরকে ধাওয়া করি, তখন কিশোরগ্যাং সদস্যরা পালিয়ে যায়, তবে আমি এবং আমার ছেলে কোনভাবেই এই ঘটনার সাথে জড়িত নয়, একটি কুচক্রী মহল আমাকে এবং আমার ছেলেকে ফাসানোর চেষ্টা করছে।

এ ঘটনা সম্পর্কে জানতে মগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ এনামুল হক শাহীন সাহেবের সাথে কথা বললে তিনি বলেন, হামলার ঘটনা সত্য, আমি এ ঘটনা শুনছি এবং ইউপি মেম্বার নাকি ঘটনার সাথে জড়িত আছে, সেও নাকি ঘটনার সময় ওখানে ছিল, তবে আমি পুলিশকে বলে দিয়েছি, যেই এই ঘটনার সাথে জড়িত হোক না কেন। সকলকে যেনো আইনের আওতায় আনা হয়। তিনি আরো বলেন আমি এখন পর্যন্ত ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে কোন অ্যাকশন নেইনি,তবে অতি শীঘ্রই ইউপি মেম্বার এর বিরুদ্ধে অ্যাকশন নিব।

আপনার পণ্য বা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন এখানে

এ সম্পর্কিত আরও খবর

আপনার পণ্য বা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন এখানে
Back to top button

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker