রাজনীতি

২য় বারের মত পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের দ্বায়িত্ব পেলেন দীপংকর তালুকদার

২য় বারের মত পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের দ্বায়িত্ব পেলেন দীপংকর তালুকদার জনসংযোগ

আরিফুল ইসলাম, রাঙামাটি প্রতিনিধি:

বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য, রাঙ্গামাটি ২৯৯নং সংসদীয় আসনের সংসদ সদস্য, সাবেক পার্বত্যপ্রতিমন্ত্রী ও রাঙ্গামাটি জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি দীপংকর তালুকদার এমপি কে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মনোনীত করা হয়েছে।

 

দ্বাদশ জাতীয় সংসদের স্থায়ী কমিটি গঠন করা হয়েছে। সোমবার (৫ ফেব্রুয়ারি) সংবিধানের ৭৬ অনুচ্ছেদ অনুসারে সংসদ নেতার অনুমতিক্রমে চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী কমিটি গঠনের প্রস্তাব উত্থাপন করলে তা কণ্ঠভোটে পাস হয়।

 

কমিটিগুলোর মধ্যে একটিতে স্বতন্ত্র সংসদ সদস্যকে সভাপতি করা হয়েছে। এ সময় স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন।

 

কমিটিগুলোর মধ্যে সংবিধান ও কার্যপ্রণালি বিধি অনুযায়ী দীপংকর তালুকদার এমপি কে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মনোনীত করা হয়।

 

তিনি মনোনীত হওয়ায় রাঙামাটি জেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী অঙ্গ সংগঠন এবং বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য- এর আগে ১৯৯১ সালে তিনি পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির দায়িত্ব পালন করছেন তিনি।

 

দীপংকর তালুকদার এমপি’র জীবনী-

দীপংকর তালুকদার এমপি একজন বাংলাদেশি রাজনীতিবিদ যিনি পঞ্চম, সপ্তম, নবম ও একাদশ জাতীয় সংসদ সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। বর্তমানে তিনি দ্বাদশ জাতীয় সংসদ সদস্য হিসেবে রাঙামাটি থেকে দ্বায়িত্ব পালন করছেন।

এছাড়াও তিনি পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ছিলেন। তিনি পার্বত্য রাঙ্গামাটি আসন থেকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনয়নে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

 

প্রারম্ভিক জীবন-

দীপংকর তালুকদার ১৯৫২ সালের ১২ ডিসেম্বর পার্বত্য রাঙ্গামাটি জেলার চম্পকনগর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতার নাম হেমন্ত প্রসাদ তালুকদার ও মাতার নাম বিদুৎপ্রভা তালুকদার। তিনি শিক্ষাজীবনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯৭৪ সালে ইংরেজিতে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন।

 

রাজনৈতিক জীবন-

দীপংকর তালুকদার ছাত্রজীবনে রাজনীতির সাথে যুক্ত হন ও ঊনসত্তরের গণঅভ্যুত্থানের একজন সক্রিয় কর্মী ছিলেন। ১৯৭২-৭৩ মেয়াদে তিনি ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটি ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হল ছাত্র সংসদের সদস্য নির্বাচিত হন। ১৯৭৩-৭৪ মেয়াদে তিনি ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৮৬ সালে আওয়ামী লীগের রাঙ্গামাটি জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। ১৯৯৬ সালে তিনি উক্ত জেলা শাখার সভাপতি নির্বাচিত হন ও বর্তমানে এ দায়িত্ব পালন করছেন।

 

১৯৯৮ সালে পার্বত্য চট্টগ্রাম শরনার্থী বিষয়ক টাস্কফোর্স গঠিত হলে তাকে এর চেয়ারম্যানের দায়িত্ব দেওয়া হয়। ১৯৯১ সালে তিনি পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি, ১৯৯৬ সালে বাংলাদেশ শিক্ষা কমিটি, সংস্থাপন মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত স্থায়ী কমিটি ও জাতীয় সংসদ হাউস কমিটির সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ২০০৯ সালে আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করার পর তিনি পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পান এবং ২০১৪ সাল পর্যন্ত এ দায়িত্ব পালন করেন।

 

দীপংকর তালুকদার ১৯৯১ সালে পঞ্চম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পার্বত্য রাঙ্গামাটি আসন থেকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনয়নে ৪৯২২১ ভোট পেয়ে প্রথমবারেরমত সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। পরবর্তীতে একই আসন থেকে জুন ১৯৯৬ সালে সপ্তম, ২০০৮ সালে নবম ও ২০১৮ সালে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিজয়ী হন। তবে, ২০০১ সালে আষ্টম ও ২০১৪ সালে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিয়ে পরাজিত হন।

 

২০১৮ সালে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিয়ে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (জেএসএস)- এর প্রভাবশালী প্রার্থী উষাতন তালুকদার কে পরাজিত করেন। বর্তমানে তিনি দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সাংসদ হিসেবে রাঙামাটি থেকে বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়ে জাতীয় সংসদে দ্বায়িত্ব পালন করছেন।

 

এর আগর দীপংকর তালুকদার এমপি ১৯৯১ সালে তিনি পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি ও ২০২০ সালে খাদ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি

দায়িত্ব পালন করছেন দীপংকর তালুকদার।

আপনার পণ্য বা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন এখানে

এ সম্পর্কিত আরও খবর

আপনার পণ্য বা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন এখানে
Back to top button

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker