অভিযোগ

চাচার বিরুদ্ধে ভোটে ভয়ভীতি ও অশোভন আচরনের অভিযোগ

 
চাচার বিরুদ্ধে ভোটে ভয়ভীতি ও অশোভন আচরনের অভিযোগ জনসংযোগ

স্টাফ রিপোর্টার:

লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে সাবেক সমাজকল্যাণ মন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদের ভাই ও ছেলের প্রতিদ্বন্দ্বীতা ভোটের মাঠে প্রকাশ্যে দ্বন্দে রুপ নিয়েছে। চাচা মাহবুবুজ্জামান এর বিরুদ্ধে
ভোটার সমর্থককে মারধর, উচ্ছৃঙ্খল আচরণ ও নারী কর্মীদের সাথে অশোভন আচরণের লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ভাতিজা রাকিবুজ্জামান আহমেদ।

লিখিত অভিযোগে রাকিবুজ্জামান উল্লেখ করেন,

নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদের প্রার্থী হিসাবে প্রতীক বরাদ্ধের পর থেকে তার কর্মী-সমর্থকরা যথাযথ নিয়মে প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে গেলেও শুরু থেকেই প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী মাহবুবুজ্জামান আহমেদ নির্বাচনী বিধিমালা লংঙ্ঘন করে চলেছেন। সামনাসামনি কিংবা ফোনে কর্মীদের হুমকি ও ভয়ভীতি প্রদর্শন করছেন। এরই ধারাবাহিকতায় গত ১৪ মে বিকেলের দিকে কাশিরাম গ্রামে জনসংযোগে যাওয়া একটি দলকে জনসংযোগে বাধা দেন মাহবুবুজ্জামান আমমেদ, তাঁর দুই ছেলেসহ কয়েকজন। এসময় অন্যতমকর্মী মেহরাবুর রহমান ওরফে কাজী আদেলকে সকলের সামনে চড় মারেন মাহবুবুজ্জামান আহমেদ। একই সাথে ওই দলে থাকা রাকিবুজ্জামান আহমেদের স্ত্রী ও ফুফুসহ বেশ কয়েকজন নারীর সাথে অশালীন ও উশৃঙ্খল আচরণ করেন। পাশাপাশি উচ্চকণ্ঠে নানা ধরণের হুমকি-ধামকি প্রদান করেন।

এ অবস্থায় সঠিক তদন্ত করে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার দাবী তার।
একই বিষয়ে জানতে চাইলে কালীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ ইমতিয়াজ কবির বলেন, মোবাইল ফোনের সংবাদ পেয়েই ঘটনার সাথে সাথেই ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন তিনি। প্রাথমিক তদন্তে ঘটনা সত্যতা পাওয়ার কথা বলে তিনি আরো জানান, আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ভুক্তভোগী সমর্থক মেহরাবুর রহমান ওরফে কাজী আদেল সাংবাদিকদের বলেন, রাকিবুজ্জামান আহমেদের নির্বাচনী কাজ করায় তাকে প্রকাশ্যে সকলের সামনে থাপ্পর মেরেছেন অপর প্রার্থী মাহাবুবুজ্জামান আহমেদ। এ সময় নারীকর্মীদের অকথ্য ভাষায় হুমকি মূলক গালমন্দ করেন তিনি।

সাবেক সমাজকল্যাণ মন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদ ছেলে আনারস প্রতীকের রাকিবুজ্জামান আহমেদ বলেন, নির্বাচনের শুরু থেকেই খুব উগ্র আচরণ দেখিয়ে আসছেন অপর প্রার্থী মাহবুবুজ্জামান আহমেদ। আজ কর্মীর উপর হাত তুলেছেন নিজেই, নারী কর্মীদের অশ্রাব্য ভাষায় গালি দিয়েছেন। এসব বিষয় নিয়ে জেলা রিটার্নিং অফিসার বরাবর অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। আশা করছি তারা তদন্ত করে অবশ্যই ঘোড়া মার্কার প্রার্থীর বিরুদ্ধে অবশ্যই ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন। ‌

অভিযোগের বিষয়ে অভিযুক্ত ঘোড়া প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী মাহবুবুজ্জামান আহমেদ বলেন, সাবেক সমাজকল্যাণ মন্ত্রী নুরজামান আহমেদের বোন চায়না চৌধুরী এলাকায় এসে ভোট চাইছেন। এ বিষয়ে নিষেধ করতে গিয়ে কথার কাটাকাটি হয়েছে। তারা যে অভিযোগ করছেন সেটি সম্পূর্ণ মিথ্যা।

এ বিষয়ে কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা জহির ইমাম বলেন, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। এ বিষয়ে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা বরাবর অভিযোগটি ফরোয়ার্ড করা হয়েছে।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

 
Back to top button

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker